ওয়েবসাইট আকর্ষনীয় করার ৫ উপায়

ভিজিটরের মনোযোগ আকর্ষন এবং আগ্রহ বাড়ানোর জন্য ওয়েবসাইট দৃষ্টিনন্দন হওয়া খুব-ই ইম্পরট্যান্ট। ভিজুয়াল ইফেক্ট একজন ভিজিটরের আকর্ষন বাড়িয়ে দেয়। প্রথম দেখাতে যদি আপনার ওয়েবসাইট ভিজিটরের কাছে ভালো লেগে যায়, তাহলে সে একটু সময় নিয়ে ভিতরটা দেখতে থাকে।

আজকের টপিকসের বিষয় ৫ উপায়ে ওয়েবসাইট আকর্ষনীয় করতে হয় কিভাবে তা জানা। এই টিপস কোন একটা নির্দৃষ্ট ওয়েবসাইট এর জন্য নয় বরং প্রতিটি সাইটের বেসিক।

১। লোডিং মুক্ত ওয়েবসাইটঃ

লোডিং মুক্ত ওয়েবসাইট বলতে লোড ছাড়া ওয়েবসাইট নয় বরং খুব কম সময় নিয়ে লোড নেয়া ওয়েবসাইট। ধরুন আপনি এমন একটা ওয়েবসাইট করলেন যেটা অনেক সুন্দর। অনেক টেক্সট, ইফেক্ট আর গ্রাফিক্সের সমন্বয়। কিন্তু আপনার ওয়েবসাইট লোড নিতে অনেক টাইম নিচ্ছে। অবশ্যই ভিজিটর সম্পূর্ণ লোড নেয়ার আগেই লিভ করবে।

এই জন্য হোমপেজ অবশ্যই ফাস্ট হতে হবে। যাতে ভিজিটর প্রথমেই প্রভাবিত হয়। দ্রুতই তার সামনে তথ্য ভেসে উঠবে।

২। তাৎপর্যপূর্ণ লোগোঃ

অর্থবহ লোগো এর বিকল্প নেই। এটা কম্পানি কিংবা ওয়েবসাইট এর প্রতিনিধিত্ব করে। লোগো ওয়েবসাইট এর কাঠামো বর্ণনা করে। একটি লোগো ওয়েবসাইট এর আইডেন্টেটি বা পরিচয় বহন করে। লোগো আবেগপ্রবণ অভিজ্ঞতার একটা অংশ, যখন ইউজার আপনার সংস্থার সাথে যোগাযোগ করতে আসে তখন সেই আবেগ অনুভব করে। এককথায় আমরা বলতে পারি, লোগো ওয়েবসাইট কে স্বরণীয় করে রাখে।

৩। একটি সুসঙ্গত গ্রাফিক্স চার্ট তৈরি করুনঃ

  • একটি ওয়েবসাইটের ভিজুয়াল উপাদান রক্ষণাবেক্ষণের মাধ্যমে সাইটটিকে  দৃষ্টিনন্দন করা সম্ভব।
  • নেভিগেট সহজ করা।
  • রং এবং ফন্ট চয়ন দ্বারা সুসংগতা স্থাপন করা।
  • সব পৃষ্ঠাগুলির রক্ষণাবেক্ষণ নিশ্চিত করা
  • এই দৃশ্যমান দৃশ্যাবলী স্থায়ীভাবে স্থাপন করা।
  • তথ্য এবং যোগাযোগ মাধ্যম গুলির প্রতিফলন করে আপনার কোম্পানি বা সংস্থার পরিচয়কে শক্তিশালী করা।
  • ভিজুয়াল থিমের দ্বারা  কোম্পানি বা সংস্থার কার্যক্রম  ফুটিয়ে তোলা উচিৎ।
  • একই সময়ে দাতা, স্বেচ্ছাসেবক এবং সমর্থক(ভিজিটর, ক্লায়েন্ট অথবা ক্রেতা) যাদের কাছে আপনি পৌঁছতে চান তাদের  আকৃষ্ট করা।

৪। একটি audiovisual প্রেজেন্টেশান তৈরিঃ

একটি গল্প বলা ভিডিও ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সাহায্য করে। পেশাগতভাবে করা হলে এই ধরনের ভিডিও তৈরি করা ব্যয়বহুল হতে পারে কিন্তু এটি একটি ন্যূনতম সম্পাদনা সহ একটি নরমাল ক্যামেরা ব্যবহার করেও করা যেতে পারে। অবশ্যই নিখুঁত চেহারা ফুটিয়ে তুলতে হবে। ছবিতে আপনার মিশনগুলি বলুন যাতে ওয়েবসাইটের ভিজিটের সংখ্যা আরও বেড়ে যায়। একটি সুন্দর ভিডিও আপনার অলাভজনক সংস্থা কিংবা প্রতিষ্ঠানের যোগাযোগের মাধ্যম হিসাবে  সাইট এর বাইরেও প্রসারিত করতে পারে।

৫। ফটোগ্রাফ ব্যবহার করে একটি গল্প ফুটিয়ে তুলে ইমোশোনাল বন্ধন তৈরিঃ

একটি গল্প বলার জন্য ফটোগ্রাফ ব্যবহার করে একটি নিবন্ধ তৈরি করুন। স্থির চিত্র কথা বলে।

স্ট্যাটিক বা ঘূর্ণায়মান ফটোগ্রাফ ব্যবহার করে স্বেচ্ছাসেবকদের, প্রাপক এবং দাতাদের(ভিজিটর, ক্লায়েন্ট অথবা ক্রেতা) মুখোমুখি হতে সাহায্য করে।  ফটোগুলি অন্যত্র ব্যবহার করা  এড়িয়ে চলুন কারণ আপনার ফটোগুলি আপনার ইমেজ দৃঢ় করে । ভিডিও থেকে বিচ্ছিন্ন ইমেজগুলি ব্যবহারকারীকে একটি নির্দিষ্ট মুহূর্তে ফোকাস করার অনুমতি দেয় এবং একটি দীর্ঘস্থায়ী লিঙ্ক তৈরি করে।

ওয়েব ডিজাইনারদের কথাঃ

অভিজ্ঞ ওয়েব ডিজাইনার টেমপ্লেট ব্যবহার না করার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। বেশিরভাগ মডেল বিভিন্ন কন্টেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (সিএমএস) অনলাইনে পাওয়া যায়, যার মধ্যে রয়েছে জনপ্রিয় ওয়ার্ডপ্রেস। এটি সর্বদা আদর্শ না হলেও, একটি টেমপ্লেট দিয়ে শুরু করে একটি মৌলিক সাইট প্রদান করতে পারে যা পরবর্তীতে ক্লায়েন্ট খুব সহজেই রক্ষণাবেক্ষণ করতে পারে।

মোদ্দা কথাঃ

একটি অসাধারণ, আকর্ষণীয় , অলাভজনক সাইট নির্মাণ করতে অনেক বাজেটের প্রয়োজন হয় না। যাইহোক, আপনার বাজেট সাপেক্ষে সাইটের উন্নতি করুন।

You may also like...

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

4 × two =

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.