কিছুক্ষণ পানিতে থাকলে মানুষের হাতের আঙুল কুঁচকে যায় কেন?

কিছুক্ষণ পানিতে থাকলে মানুষের হাতের আঙুল কুঁচকে যায় কেন?

দারুন একটি প্রশ্ন করেছেন, বিজ্ঞানের মজা আসলেই জানতে পারার মাধ্যমে।

আমরা বেশীক্ষণ ধরে গোসল করলে কিংবা পানির কাজ করলে নিশ্চয়ই লক্ষ্য করছেন আঙুলের ডগার চামড়া কুঁচকে যায়। প্রায় প্রত্যেকেই এই বিষয়টি জানেন। তাহলে এখন না জেনে থাকলে জেনে রাখুন যে, আসলে কিন্তু চামড়াটা কুঁচকে যায় না। বরং ঘটে অন্য একটি কিছু! তখন আমাদের আন্দাজ হয় আঙুলের চামড়া কুঁচকে গিয়েছে।

আঙুল কুঁচকে যাওয়া, ছবি ইন্টারনেট সংগ্রহীত।

আসুন এবার এর কারন জেনে নেই- আমাদের দেহের চামড়া বেশ কয়টি স্তর দিয়ে তৈরি। আমাদের দেহের চামড়ার সর্বশেষ স্তরটির নাম এপিডারমিস। শরীরের এই এপিডারমিস স্তর থেকে একধরনের তৈলাক্ত পদার্থ নির্গত হয় যার নাম সেবাম। এই সেবামই আমাদের চামড়ার জন্য একটি প্রতিরক্ষা পর্দার মতো তৈরি করে রাখে। আমরা যখন কাঁচ কিংবা অন্যান্য মসৃণ কোনো তল স্পর্শ করি তখন আমাদের হাতের ছাপ বসে যায় সেখানে, আমাদের হাত পরিস্কার থাকলেও এটি হয়ে থাকে। এই তৈলাক্ত ছাপই সেবাম। সেবামের কারণেই এই কাজটি হয়ে থাকে। যখন আমরা কিছু সময় পানি ধরি বা পানির সংস্পর্শে থাকি তখন এই সেবামের কারণে পানি আমাদের চামড়ার ভেতরের স্তরে প্রবেশ করতে পারে না। কিন্তু বেশি সময় ধরে পানি ধরলে আমাদের হাতের এই সেবাম চলে যায় এবং চামড়ার ভিতরে পানি প্রবেশ করে। অর্থাৎ আমাদের চামড়া পানি শোষণ করে এবং এপিডারমিসের ভেতরের স্তর ডারমিসে প্রবেশ করে। তখন যেই স্থানগুলোতে ডারমিস ও এপিডারমিসের মধ্যকার বন্ধন থাকে না সেসব স্থান পানি শোষণ করে ফুলে যায় এবং যে যে স্থানগুলোতে ডারমিস ও এপিডারমিসের মধ্যকার বন্ধন থাকে সেসব স্থান আগের মতোই থাকে। তাই আমাদের কাছে চামড়া কুঁচকে গিয়েছে বলে মনে হয় বা দৃশ্যত আমরা তাই দেখি।

সূএ ইন্টারনেট

You may also like...

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

1 + 4 =

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.