কিছু স্টাডি হ্যাক কী কী যা প্রতিটি শিক্ষার্থীর জানা উচিত?

  • পড়াশোনার সেরা সময় ভোর চারটের পর থেকে ৭ টার মধ্যে। রাত জেগে পড়াশোনা করে সকাল ১০ টায় ঘুম থেকে ওঠা রীতিমতো আত্মঘাতী।
  • কোনো একটা বিশেষ বিষয় একনাগাড়ে এক ঘন্টার বেশি পড়া উচিত নয়। প্রতি ঘন্টা পরপর বিষয় পরিবর্তন করাটা কার্যকরী। এটি আমি নিজেও করে দেখেছি।
  • পরীক্ষা দিতে যাওয়ার আগে গান শুনুন এবং সম্ভব হলে নেচে নিন। হালকা মনে পরীক্ষা দিলে চাপ সামাল দেয়া আর সমস্যা সমাধানের দক্ষতার উন্নতি হয়। এটিও আমি এপ্লাই করে ভালো ফল পেয়েছি।
  • পড়ার ফাঁকে ফাঁকে একটু পায়চারি করে নিন। মস্তিষ্ক আরো বেশি সক্রিয় হয়ে উঠবে।
  • ছোটদের আদর করুন, চুম্বন করুন। এতে করে আপনার মস্তিষ্ক আরো শার্প হয়ে উঠবে।
  • পড়ার সময় মোবাইল ফোন দূরে রাখুন। নোটিফিকেশনগুলো পড়ায় মনোযোগ দিতে বাধা দেয়।
  • পড়ার পূর্বে সুন্দর পোশাক পরার চেষ্টা করুন।
  • পড়ার টেবিল যতটা সম্ভব রঙিন রাখুন।
  • পরিমিত পানি পান করুন। তবে ঠিক পড়তে বসার পূর্বে অতিরিক্ত পান করবেন না, তাহলে ন্যাচারাল কল আপনার মনোযোগের বারোটা বাজিয়ে ছাড়বে।
  • ক্যালকুলেটর, জ্যামিতি বক্স ইত্যাদি হাতের কাছে রাখুন। ক্যালকুলেটর খুঁজতে খুঁজতে অনেক সময় এর আগে আপনি কতটুকু পড়ে শেষ করেছেন বা অংকের কতটুকু সমাধান করেছেন তা ভুলে যেতে পারেন।

তথ্যসূএ ইন্টারনেট

You may also like...

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

7 + three =

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.