মধুসূদন দত্তের “মেঘনাদবধ কাব্য:-এর কাহিনী কোন মহাকাব্য থেকে নেয়া ?

রামায়ণ

মহাভারত

মহাশ্মশান

ইলিয়াড

Description (বিবরণ) :

প্রশ্ন: মধুসূদন দত্তের “মেঘনাদবধ কাব্য:-এর কাহিনী কোন মহাকাব্য থেকে নেয়া ?

ব্যাখ্যা:

সংস্কৃত মহাকাব্য ‘রামায়ণ’-এর ক্ষুদ্র ভগ্নাংশ কাহিনী অবলম্বন করে মধুসূদন দত্ত ‘মেঘনাদবধ কাব্য’ রচনা করেন। এটি বাংলা সাহিত্যের প্রথম সার্থক মহাকাব্য। অমিত্রাক্ষর ছন্দে রচিত এ মহাকাব্যটি ১৮৬১ সালে প্রকাশিত হয়।


Related Question

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর কোথায় ছিলেন না?

শাহজাদপুর

শিলাইদহ

মনপুরা

পিতশ্বর

Description (বিবরণ) :

বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ভোলা দ্বীপ থেকে প্রায় ৮০ কিমি দূরে সাগরের বুকে জেগে ওঠা নয়নাভিরাম বিচ্ছিন্ন দ্বীপ মনপুরায় ছিলেন না। বাকি স্থানগুলোতে তার জমিদারি ছিল। এ কারণে এসব স্থানে তিনি অবস্থান করেন।

বাংলা সাহিত্যের পল্লীকবি কে?

কাজী নজরুল ইসলাম

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

শামসুর রাহমান

জসীমউদ্‌দীন

Description (বিবরণ) :

বাংলা সাহিত্যের পল্লীকবি জসীমউদ্দীন। তার জন্ম ১ জানুয়ারি ১৯০৩ সালে ফরিদপুরের তাম্বুলখানা গ্রামে। তার বিখ্যাত কাব্যগ্রন্থ রাখালী, নকসীকাঁথার মাঠ, বালুচর, ধানখেত প্রভৃতি।

”ড়” এবং ”ঢ়” ধ্বনিগুলোকে বলে-

তাড়নজাত

কম্পনজাত

নাসিক্য

উষ্ম

Description (বিবরণ) :

ড় এবং ঢ় ধ্বনিগুলোকে বলে তাড়নজাত ধ্বনি। কারণ এ ধ্বনি দুটি জিহ্বার অগ্রভাগের তলদেশ দ্বারা অর্থাৎ উল্টোপিঠের দ্বারা ওপরের দন্তমূলে দ্রুত আঘাত বা তাড়না করে উচ্চারিত হয়।

”চোখের বালি” অর্থ কি?

চোখের অসুখ

চোখের যত্ন

শত্রু

কৃতঘ্ন

Description (বিবরণ) :

চোখের বালি’ অর্থ শত্রু বা চক্ষুশূল। চোখের বালি হল চোখের পীড়াদায়ক জিনিস অর্থাৎ যাকে দেখলে ক্রোধ জন্মে।

”সবুজপত্র” সম্পাদনা করেন কে?

প্রমথ চৌধুরী

রাধানাথ সিককদার

কাজী নজরুল ইসলাম

বঙ্কিমচন্দ্র

Description (বিবরণ) :

১৯১৪ সালে প্রমথ চৌধুরীর সম্পাদনায় প্রকাশিত ‘সবুজপত্র’ বাংলা সাময়িকপত্রের ইতিহাসে বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। প্রমথ চৌধুরী বীরবলী রীতি নামে যে মৌখিক ভাষারীতি সাহিত্যে প্রচলন করে যুগান্তর এনেছিলেন তার প্রচারের মাধ্যম ছিল এ সবুজপত্র।

আনন্দ মঠ উপন্যাস কার লেখা?

শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়

তারাশঙ্কর বন্দোপাধ্যায়

বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়

আনন্দ মোহন চক্রবর্তী

Description (বিবরণ) :

ঔপন্যাসিক ও বাঙালি নবজাগরণের অন্যতম অগ্রদূত বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় রচিত ছিয়াত্তরের মন্বন্তর নিয়ে সন্ন্যাসী বিদ্রোহের ছায়া অবলম্বনে রচিত উপন্যাস ‘আনন্দ মঠ’। ‘আনন্দ মঠ’ ‘দেবী চৌধুরাণী’ ও ‘সীতারাম’ এই তিনটি উপন্যাসকে ত্রয়ী উপন্যাস হিসেবে অভিহিত করা হয়। তিনি বাংলা সাহিত্যে প্রথম সার্থক উপন্যাস রচনা করেন।

”জমীদার দর্পণ” এর রচয়িতার নাম কি?

মীর মোশাররফ হোসেন

দীনবন্ধু মিত্র

মাইকেল মধুসূদন দত্ত

প্যারিচাঁদ মিত্র

Description (বিবরণ) :

‘জমীদার দর্পণ’ মীর মশাররফ হোসেন রচিত একটি নাটক। কৃষকের জীবনে একজন জমিদার যে কতটুকু অভিশাপ হয়ে দেখা দিতে পারে তা এ নাটকে উপস্থাপন করা হয়েছে। তিনি প্রথম মুসলিম ঔপন্যাসিক। ‘বিষাদসিন্ধু’ তার বিখ্যাত একটি উপন্যাস। ‘বসন্ত কুমারী’ তার অপর একটি বিখ্যাত নাটক।

”ঘোড়া” এর সমার্থক শব্দ নয় কোনটি?

অশ্ব

ঘোটক

তুরগ

গর্দভ

Description (বিবরণ) :

ঘোড়া’-এর সমার্থক শব্দগুলো- হলো অশ্ব, ঘোটক, তুরঙ্গ, বাজী, তুরগ প্রভৃতি। কাজেই গর্দভ ঘোড়ার সমার্থক শব্দ নয়। গর্দভ-এর সমার্থক শব্দগুলো হলো গাধা, রাসভ প্রভৃতি।

”আমরা স্বাধীন বাংলাদেশের নাগরিক” কোন বিভক্তি?

কর্মে ৬ষ্ঠী

করণে শূন্য

অধিকরণে ৬ষ্ঠী

করণে ৭মী

Description (বিবরণ) :

অধিকরণ কারক বলতে বোঝায় ক্রিয়া সম্পাদনের কাল (সময়) ও আধারকে। বাংলাদেশ একটি স্থান, এর সাথে বিভক্তি চিহ্ন ‘এর’ যুক্ত হয়েছে। কাজেই নিয়ম অনুযায়ী এটি অধিকরণ কারক এবং ৬ষ্ঠী বিভক্তি। 

কোন রঙের কাপে চা তাড়াতাড়ি ঠান্ডা হয়?

লাল

সাদা

কাল

সবুজ

Description (বিবরণ) :

যে কোনো সাদা রঙের বস্তু তাপ দ্রুত হারায়। রঙিন বস্তু সময়ের সাথে সাথে পরিবর্তিত হয়ে থাকে। অপরদিকে কৃষ্ণ বস্তুর ধর্মই হচ্ছে তাপ ধরে রাখা। সুত্রাং সঠিক উত্তর (গ)।