'এলাটিং বেলাটিং' গ্রন্থের প্রনেতা কে?

শামসুর রাহমান

শহীদুল্লাহ কায়সার

হুমায়ূন আজাদ

সৈয়দ শামসুল

আলাউদ্দিন আল আজাদ

Description (বিবরণ) :

প্রশ্ন: 'এলাটিং বেলাটিং' গ্রন্থের প্রনেতা কে?

ব্যাখ্যা: ‘এলাটিং বেলাটিং’ শামসুর রাহমান রচিত শিশুতোষ গ্রন্থ। এছাড়াও তার রচিত শিশুতোষ গ্রন্থ হলোঃ ধান ভানলে কুঁড়ো দেবো, রংধনু সাঁকো, লাল ফুলকির ছড়া ও স্মৃতির শহর।


Related Question

ঠাই না ঠাই না, ছোট সে তরী/ আমারি সোনার ধান নিয়েছি ভরি। এটি কোন কবিতার অংশ ?

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরঃ সোনার তরী

কবি জসীমদ্দীনঃ কবর

কবি নজ্রুল ইসলামঃ সর্বহারা

কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরঃ হিং টিং ছট

কবি নজ্রুল ইসলামঃ বিদ্রোহী

Description (বিবরণ) : ঠাঁই নাই, ঠাঁই নাই। ছোটো সে তরী/আমারি সোনার ধানে গিয়েছে ভরি’- পংকক্তিদ্বয় কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর রচিত ‘সোনার তরী’ কবিতার অংশ। এটি ‘সোনার তরী’ কাব্যের ‘সোনারতরী’ নামকবিতা। এছাড়া এ কাব্যের উল্লেখযোগ্য কবিতাঃ নিদ্রিতা, হিংটং ছট, পরশপাথর, পুরষ্কার, নিরুদ্দেশ যাত্রা।

নিচের কোন বর্ননাটি সঠিক ?

প্রত্যেক ব্যক্তি সাধারন স্বার্থের চেয়ে নিজের স্বার্থ সমুন্নত রাখবে

কর্মচারীদের পদকে দীর্ঘ সময় অস্থায়ী রাখবে

একটি নির্দেশনায় সামাঞ্জস্যহীন বিষয় থাকতে পারে

সঠিক সময় কাজ পেতে কর্তৃত্ব ও দায়িত্ব নানা রকম রাখতে হবে

প্রত্যেক ব্যক্তি নিজের চেয়ে সাধারন স্বার্থ সমুন্নত রাখবে

রুপতত্ত্বের অপর নাম কি?

বাক্য তত্ত্ব

পদক্রম

ধ্বনি তত্ত্ব

শব্দ তত্ত্ব

বিভক্তি

Description (বিবরণ) : রুপতও্বের অপর নাম ‘শব্দতও্ব’। ব্যাকরণের প্রধান আলোচ্য বিষয় চারটি। যথাঃ ধ্বনিতও্ব, শব্দতও্ব বা রুপতও্ব, বাক্যক্রম বা পদক্রম এবং অর্থতও্ব বা বাগর্থ বিজ্ঞান। সুতরাং সঠিক উত্তর (b)।

মুজিবনগর সরকার কতসালে কত তারিখে গঠন করা হয়েছিল?

৯ ই এপ্রিল ১৯৭১

১২ই এপ্রিল ১৯৭১

১৩ই এপ্রিল ১৯৭১

১০ই এপ্রিল ১৯৭১

১১ই এপ্রিল ১৯৭১

Description (বিবরণ) : মুজিবনগর সরকার গঠন করা হয় ১০ এপ্রিল ১৯৭১। এ সরকারের রাষ্ট্রপতি ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান। অস্থায়ী/উপ-রাষ্ট্রপতি ছিলেন সৈয়দ নজরুল ইসলাম, প্রধানমন্ত্রী ছিলেন তাজউদ্দীন আহমদ।

অগ্নিবীণা কাব্যগ্রন্থের প্রথম কবিতা কোনটি?

বিদ্রোহী

অগ্রপথিক

মুক্তি

ধুমকেতু

প্রলয়উল্লাস

Description (বিবরণ) : ‘অগ্নিবীণা’ কাজী নজরুল ইসলাম রচিত প্রথম কাব্যগ্রন্থ। এ কাব্যগন্থের প্রথম কবিতা ‘প্রলয়োল্লাস’। এছাড়া এ কাব্যের উল্লেখযোগ্য কবিতা হলোঃ বিদ্রোহী, রক্তাস্বর-ধারিণী মা, আগমনী, ধূমকেতু, খেয়াপারের তরনী, মোহররম। ‘অগ্রপথিক’ তার ‘জিঞ্জীর’ কাব্যগ্রন্থের অন্তর্গত কবিতা এবং ‘মুক্তি’ তার প্রথম প্রকাশিত কবিতা।

'মৃগাঙ্ক' শব্দটির অর্থ হলো?

হরিণ শিশু

বল্গা হরিণ

চিত্রা হরিণ

চন্দ্র

হরিণ শিকার

Description (বিবরণ) : ‘মৃগাস্ক’ বিশেষ্যবাচক শব্দটির অর্থঃ চন্দ্র।

নিচের কোনটি সূর্য এর প্রতি শব্দ নয়?

বিভাকর

বিলম্বন

মিহির

উর্বী

বিভাবসু

Description (বিবরণ) : ‘সূর্য’ শব্দের সমার্থক শব্দঃ বিভাকর, বিভাবসু, মিহির, বিবস্বান, দিবাবসু ইত্যাদি। ‘উরবী’ হচ্ছে ‘পৃথিবী’ শব্দের সমার্থক।

বিচরন শব্দে বি উপসর্গটি কি অর্থে ব্যবহিত হয়েছে?

সাধারন

অভাব

প্রভাব

বিশেষন

গতি

Description (বিবরণ) : যেসব অব্যয়জাতীয় শব্দ বা শব্দাংশ শব্দ বা ধাতুর আগে বসে নতুন শব্দ গঠন করে এদেরকে উপসর্গ বলে। ‘বিচরণ’ শব্দটি সংস্কৃত ‘বি’ উপসর্গযোগে গঠিত হয়েছে। এখানে ‘বি’ উপসর্গটি ‘গতি’ অর্থে ব্যবহৃত হয়েছে।

মশগুল কোন ভাষার শব্দ?

তুর্কী

হিন্দি

ফার্সি

আরবী

বাংলা

Description (বিবরণ) : ‘মশগুল’ আরবি ভাষার শব্দ; যার অর্থঃ বিভোর। এছাড়া আরবি ভাষার আরো কিছু শব্দ হলোঃ ইনকিলাব, দুনিয়া, মহকুমা, খবর ইত্যাদি। হিন্দি ভাষার কিছু শব্দ হলোঃ পানি, চানাচুর, কাহিনি ইত্যাদি। তুর্কি ভাষার কিছু শব্দঃ আনারস, আচার, আলমারি, বাসন ইত্যাদি। ফারসি ভাষার শব্দঃ আইন, কানুন, নবাব, বাগান ইত্যাদি।

নিচের কোন বানানটি সঠিক ?

ক্ষনজীবী

ক্ষীনজীবি

ক্ষিনজীবী

ক্ষীণজিবী

ক্ষীণজীবী

Description (বিবরণ) : প্রশ্নে প্রদত্ত শব্দগুলোর মধ্যে শুদ্ধ বানানটি হলো ‘ক্ষীণজীবী,’ যার অর্থঃ অল্পপ্রাণ সম্পন্ন।